স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী; দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা

মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি ২০২০ | ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | 263 বার

স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী; দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা
Advertisements

পাবনার চাটমোহর উপজেলার আগশৈয়াইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠ দখল করে রাখা হয়েছে রাস্তার কাজের নির্মাণ সামগ্রী। দীর্ঘদিন ধরে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ওই স্কুল মাঠে ফেলে রেখেছেন বালু মিশ্রিত পাথর ও বুলডোজার। অথচ স্কুলের পাশ দিয়ে যাওয়া সেই রাস্তার কাজ এখনও শেষ হয়নি। খেলাধুলা ও স্কুলে যাতায়াত করতে গিয়ে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। অনেক শিক্ষার্থী পাথরের কুচির আঘাতে আহত হচ্ছে। দীর্ঘদিন ধরে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী ফেলে রাখলেও সেগুলো সরানোর ব্যাপারে কোনো উদ্যোগ নেয়নি সংশ্লিষ্ট দপ্তর। এনিয়ে এলাকাবাসীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের (এলজিইডি) অধীনে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আগশৈয়াল স্লুইস গেট অভিমুখে তাঁতীপাড়া পর্যন্ত ৫০০ মিটার রাস্তার নির্মাণ কাজ শুরু হয় গত বছরের কোরবানি ঈদের আগে। কাজের ব্যায় ধরা হয়েছে ২৭ লাখ টাকা। কাজটি পায় পাবনার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আহমেদ রঞ্জু ট্রেডার্সের মালিক আহমেদ রঞ্জু। শুরুর কিছুদিনের মাথায় অজানা কারণে কাজটি বন্ধ করে দেয় ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু স্কুল মাঠে রেখে যায় নির্মাণ কাজের জন্য আনা বালু-পাথর, বিটুমিনের ড্রাম এবং একটি বুলডোজার।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, স্কুল মাঠের অর্ধেকেরও বেশি অংশ জুড়ে ফেলে রাখা হয়েছে পাথর। পুরো মাঠ জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে পাথরের কুচি। মাঠের এক কোণে রাখা হয়েছে বুলডোজার। ছোট ছোট পাথরের কুচি ছড়িয়ে পড়েছে পুরো মাঠ। বন্ধ হয়ে গেছে খেলাধূলা। আর একটু বাতাস হলেই উড়ছে ধুলো বালি। শ্রেণীকক্ষে জমা হচ্ছে ধূলার আস্তরণ। অসুবিধার কারণে অতিসম্প্রতি মাঠে রাখা বেশ কিছু বিটুমিনের খালি ড্রাম স্কুলের প্রধান শিক্ষক লোকজন দিয়ে অন্য জায়গায় সরিয়ে রাখেন। স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী ফেলে রাখায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন এলাকাবাসী। এদিকে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ নিয়ে মঙ্গলবার সানোয়ার হোসেন সানু নামে স্থানীয় এক যুবক ‘চেতনায় চাটমোহর’ নামক একটি ফেসবুক গ্রæপে পোস্ট দিলে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

এ ব্যাপারে আগশৈয়াইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুন নাহার বলেন, স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী রাখতে নিষেধ করা হয়েছিল। কিন্তু তারা শোনেননি। বালু ও পাথরের কারণে ছোট ছোট ছেলে-মেয়েরা স্কুলে যাতায়াত এবং খেলাধূলা করতে পারছে না। এটা নিয়ে খুব বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছি। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অনেক বার জানিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মনির হোসেন বলেন, এলাকার উন্নয়নের কথা চিন্তা করে মাঠে নির্মাণ সামগ্রী রাখতে দেয়া হয়েছিল। দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার কাজও বন্ধ রয়েছে। এ নিয়ে ঠিকাদারের লোকজনকে বহুবার বলার পরেও মাঠ থেকে নির্মাণ সামগ্রীগুলো সরাচ্ছে না তারা।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে ঠিকাদার আহমেদ রঞ্জুর মোবাইলে ফোন দিলে তিনি রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে ওই কাজের তদারকি করার জন্য ঠিকাদার নিযুক্ত স্থানীয় বোয়াইলমারী গ্রামের আবদুল হামিদ জানান, দু’একদিনের মধ্যেই মাঠ থেকে নির্মাণ সামগ্রীগুলো সরিয়ে নেয়া হবে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার এবং উপজেলা প্রকৌশলী দেশের বাইরে থাকায় তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার মোহাম্মদ রায়হান বলেন, স্কুল মাঠে নির্মাণ সামগ্রী রেখে শিক্ষার্থীদের অসুবিধা করা ঠিক হয়নি। অতি সত্ত্বর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh