সেই চিরচেনা মাঠে বৃন্দাবন…

শনিবার, ২৫ আগস্ট ২০১৮ | ১০:১০ পূর্বাহ্ণ | 861 বার

সেই চিরচেনা মাঠে বৃন্দাবন…
বল হাতে নিজের প্রিয় মাঠে বৃন্দাবন
Advertisements

অনেকদিন পর নিজের প্রিয় মাঠে এলেন, ট্রফি নিয়ে সারা মাঠ ঘুরলেন, দু’বার নিজের ডান পায়ের শটে ফাঁকা জালে গোল করলেন, যেন ফিরে গেলেন হারানো দিনগুলোতে। উপস্থিত হাজারো দর্শক ভক্ত করতালী দিয়ে অভিনন্দন জানালেন তাকে।

বলছি, চাটমোহরের এক সময়ের তুখোড় ফুটবল খেলোয়ার, এখন দাপুটে নাট্যকার-অভিনেতা বৃন্দাবন দাসের কথা। শুক্রবার বালুচর খেলার মাঠে দেখা মেলে সেই চিরচেনা বৃন্দাবনকে। তাকে পেয়ে যেন প্রাণ ফিরে পায় চাটমোহরের মানুষ।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান রানা মাস্টার স্মৃতি ফুবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা ছিল শুক্রবার। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বিকেলে খেলার শুরুর কিছুক্ষণ পর মাঠে আসেন চাটমোহরের প্রাণের মানুষ বৃন্দাবন দাস। সাথে ছিলেন সহধর্মীনি শাহনাজ খুশি এবং তাদের যমজ সন্তান দিব্য জ্যোতি ও সৌম্য জ্যোতি।

Chatmohor Brindabon Khushi Photo-2প্রথমে মঞ্চে অতিথিদের সাথে বসে খেলা উপভোগ করেন তারা। মঞ্চে অনেক নামকরা মেহমান থাকলেও সব লাইমলাইট গিয়ে পড়ে যেন বৃন্দাবন-খুশি’র উপর।

যেহেতু একজন ভাল ফুটবল খেলোয়ার ছিলেন বৃন্দাবন দাস। তাই খেলা চলাকালে মাঝে মধ্যেই উসখুস করছিলেন তিনি। মনে হচ্ছিল খেলার জন্য আনচান করছে তার মন।

তাই খেলার প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার সাথে সাথে তিনি নেমে পড়েন মাঠে। ট্রফি হাতে উঁচু করে ধরে নিয়ে সেই চিরচেনা মাঠের চারপাশে ঘুরে বেড়ালেন তিনি। দর্শক আর ভক্তরা মুহুর্মুহু করতালী দিয়ে শুভেচ্ছা জানালেন তাকে।

মাঠ ঘোরা শেষ হলে মাঠের পশ্চিম পাশের গোল পোস্টের সামনে বল পেয়ে একটু দৌঁড়ে শট দিয়ে গোল করেন দুইবার। যেন ফিরে গেলেন হারানো সেই আগের দিনগুলোতে। এভাবেই তিনি বল নিয়ে দৌঁড়াতেন, গোল করতেন।

তবে বিড়ম্বনাও কম হয়নি। ভক্ত আর দর্শকরা তাদের এতকাছে পেয়ে ছবি আর সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। কষ্ট হলেও হাসিমুখে সবার আব্দার মেটানোর চেষ্টা করেন বৃন্দাবন-খুশি দম্পতি।

Chatmohor Brindabon Khushi Photo-3খেলা শেষে দর্শকদের অনুরোধে কিছু বলার অনুরোধ আসলে বৃন্দাবন দাস বলেন, ‘আমি এখানে আসতে পেরে খুব ভাল লাগছে। চাটমোহর খেলোয়ার কল্যাণ সমিতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমান রান মাস্টার স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্ট সুন্দরভাবে শেষ করতে পেরেছে এটা বড় একটা সাফল্য। মনে করি এই সাফল্য আমারও।’

Pabna Brindabon Football Photo-022

‘কারণ এই মাঠের আমিও একজন খেলোয়ার। এখান থেকেই আমি আজকের বৃন্দাবন। চাটমোহরের মানুষ আমার প্রাণের মানুষ। আমার অনেক নাটকে চাটমোহরের বিভিন্ন স্থানের ও মানুষের নাম রেখেছি। বৃন্দাবন বলেন, আমি আবার আসবো আপনাদের কাছে। কথা দিল্যেম তো।’

খোঁজখবর/এসআর

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh