সুইস ব্যাংকে বিএনপি’র মনোনয়ন বাণিজ্যের টাকা : প্রধানমন্ত্রী

শনিবার, ২৯ জুন ২০১৯ | ৮:৩৯ অপরাহ্ণ | 344 বার

সুইস ব্যাংকে বিএনপি’র মনোনয়ন বাণিজ্যের টাকা : প্রধানমন্ত্রী
সংগৃহিত ছবি

একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে অর্থবিল-২০১৯ পাসের প্রস্তাব উত্থাপনের পর জনমত যাচাইয়ে বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানার প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আপনারা যাদের প্রশংসা করেন, যাদের কথা বেশি বলেন সুইস ব্যাংকের হিসেবের তালিকায় তাদের কথাটাই বেশি এসেছে। শুধু তাই নয়, এমনও তথ্য এসেছে ২০১৮ সালের নির্বাচনে একটা আসনের বিপরীতে ৩ জনের অধিক বা দুই জনের অধিক মনোনয়ন দিয়ে যে বাণিজ্য করল তার টাকাগুলো কোথায় রাখলো? এই খোঁজটা করলে সুইস ব্যাংকের হিসাবটা পেয়ে যাবেন।

শনিবার (২৯ জুন) বিকেলে সংসদ ভবনে চলা অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাজেট উত্থাপনের পর প্রত্যেকের কথা বলার অধিকার আছে। মন্ত্রীরা একমত কি না, বা সংসদ সদস্যরা একমত কি না? বাজেট যখন তৈরি হয় তখন সবার মতামত নেয়া হয়। বাজেট যখন কেবিনেটে পাস হয়, পাস হওয়ার পর রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষর নিয়ে সংসদে আসে। বাজেট যেদিন উপস্থাপন করা হয় বিশেষ কেবিনেটের মাধ্যমেই বাজেট উপস্থাপন করা হয়। কাজেই সেখানে মন্ত্রীদের সকলের মতামত থাকে। তারপরও কথা বলার অধিকার সকলেরই আছে।

খেলাপি ঋণ নিয়ে সংসদ সদস্যের ক্ষোভের জবাবে সংসদ নেতা বলেন, খেলাপি ঋণের সংস্কৃতি কখন আসছে? যখন থেকে এই দেশে সামরিক শাসন এসেছে। এই সামরিক শাসন কিভাবে এসেছে জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করার পর। সামরিক শাসকরা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে কিছু লোককে বিশেষ সুবিধা দিতে গিয়ে ব্যাংক থেকে অকাতরে ঋণ দেয়া এবং ঋণ পরিশোধ না করার সংস্কৃতির সৃষ্টি। এটা ব্যাংকের ইতিহাস।

তিনি বলেন, যখন থেকে জিয়া ক্ষমতায় এসেছিলেন তখন থেকে খেলাপি ঋণের সংস্কৃতি শুরু। সেখান থেকে বের করে আনা অত্যন্ত কষ্টকর। তবে দেশে ধারাবহিকভাবে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া থাকলে খেলাপি ঋণের সংস্কৃতি চলে যেতে বাধ্য। ঋণে খেলাপি দূর করতে কিছু পদক্ষেপ নিয়েছি, নিয়ে যাচ্ছি।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্টঃ WebNewsDesign