খোঁজ খবরে সংবাদ প্রকাশ

শিশু ফাতেমার পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন হামিদ মাস্টার

রবিবার, ১০ মে ২০২০ | ৫:০৪ অপরাহ্ণ | 686 বার

শিশু ফাতেমার পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন হামিদ মাস্টার
Advertisements

খোঁজ খবরে সংবাদ প্রকাশের পর চাটমোহর উপজেলার রাজারদিয়ার গ্রামের সেই শিশু ফাতেমা ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল হামিদ মাস্টার। রোববার দুপুরে ওই বাড়িতে গিয়ে খাদ্য সামগ্রী ও দুধ কেনার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন তিনি।

এরআগে শনিবার খোঁজ খবর ডট নেটে ‘দুধ কেনার টাকা নেই বাবার, মা হারা শিশু ফাতেমা খায় পাতলা সুজি!’ এমন শিরোনামে একটি সচিত্র সংবাদ প্রকাশ হয়। পরে ওই প্রতিবেদকের সাথে যোগাযোগ করে সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল হামিদ মাস্টার। এরপর তিনি রোববারে দুপুরে ছুটে যান ওই বাড়িতে। শিশু ফাতেমার বাবা ও বোনের হাতে তুলে দেন নানা খাদ্য সামগ্রী এবং নগদ টাকা।

এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল হামিদ মাস্টার বলেন, ‘আমি বেঁচে থাকতে আমার উপজেলার কেউ না খেয়ে থাকবে না। একজন মা হারা শিশু টাকার অভাবে দুধ খেতে পারবে না, এটা ভাবতেই কষ্ট লেগেছে। সংবাদটি পড়ার পর ওই প্রতিবেদকের সাথে যোগাযোগ করে সাধ্যমতো সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি।’ অসহায় মানুষের জন্য সবসময় তার দরজা খোলা থাকবে বলে জানান তিনি।

এদিকে মানবিক এই সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর থেকে স্যোশাল মিডিয়ায় শুরু হয় তোলাপাড়। অনেকেই ওই অসহায় পরিবারকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এরমধ্যে রোববার সকালে ওই বাড়িতে দুধ ও ফলমূল নিয়ে হাজির হন সরকারি এক কর্মকর্তা (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)। এরপর দুধসহ নানা খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ওই বাড়িতে হাজির হন চাটমোহর ব্লাড ডোনার ক্লাবের সভাপতি বিশিষ্ট হোটেল ব্যবসায়ী শহিদুল ইসলাম এবং ওই সংগঠনের অন্য সদস্যরা।

উল্লেখ্য, নয় মাস বয়সী ফাতেমা খাতুন। জন্মের মাসখানেকের মাথায় মাকে হারায় শিশুটি। তবে বড় দুই বোন বিলকিস ও অঞ্জনা মায়ের আদরে বড় করে তুলছে তাকে। কিন্তু শিশুটির যখন দুধসহ নানা পুষ্টিকর খাবার দরকার তখন তার ভাগ্যে জোটে পানি মিশ্রিত পাতলা সুজি!

নির্মাণ শ্রমিক বাবা বিল্লাল হোসেন পায়ে সেপটিক ঘায়ে আক্রান্ত হওয়ায় এখন বিছানা শয্যায়। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি এখন কর্মহীন। অর্ধহারে-অনাহারে সংসার চলে। তাই ফাতেমার জন্য দুধ কেনা অলীক স্বপ্নের মতো পরিবারটির কাছে!

পাবনার চাটমোহর উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের রাজারদিয়াড় গ্রামে অন্যের জায়গার ওপর কোনো মতে একটি টিনের ছাপড়া ঘরে বসবাস এই দরিদ্র পরিবারটির।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh