বাবা-সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ স্কুলছাত্রীর !

শুক্রবার, ২৪ আগস্ট ২০১৮ | ৪:০১ অপরাহ্ণ | 700 বার

বাবা-সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ স্কুলছাত্রীর !
ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রী
Advertisements

দিনের পর দিন নিজের বাবা ও সৎ ভাইয়ের লালসার শিকার হয়েছেন এক স্কুলছাত্রী। কিন্তু কখনও মুখ ফুটে কাউকে বলতে পারেননি তিনি। এক পর্যায়ে অন্ত:সত্ত্বা হয়ে পড়লে ভ্রুণ নষ্ট করে ফেলতে বাধ্য করেন পাষন্ড ওই বাবা।

চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনার অভিযোগ উঠেছে পাবনার চাটমোহর উপজেলার মুলগ্রাম ইউনিয়নের বালুদিয়ার দক্ষিণপাড়া গ্রামে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর তোলপাড় শুরু হয়েছে ওই এলাকায়। আর অবস্থা বেগতিক দেখে গা ঢাকা দিয়েছে অভিযুক্ত বাবা-ছেলে।

আর এমন ঘটনায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন ওই স্কুলছাত্রী। আর ঘরে তালা দিয়ে পালিয়ে গেছে অভিযুক্ত বাবা-ছেলে। তারপর থেকে মেয়েটির আশ্রয় মিলেছে প্রতিবেশি মামার বাড়িতে।

ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর অভিযোগ, তার স্বজন ও প্রতিবেশিদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বালুদিয়ার দক্ষিণপাড়া গ্রামের গুড় ব্যবসায়ী আনু মন্ডলের দ্বিতীয় স্ত্রী মারা যাওয়ার পর তিন মেয়েকে নিয়ে ওই গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। এরমধ্যে দুই মেয়ের বিয়ে হয়ে যায়। অভিযোগ উঠেছে, এরপর থেকেই নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছোট মেয়ে বাড়িতে একা থাকার সুযোগে তাকে দিনের পর দিন ধর্ষণ করে বাবা। আরো অভিযোগ, পিতার অপকর্মের সাথে যোগ দেয় আনু মন্ডলের প্রথম পক্ষের ছেলে রিপন হোসেন। দিনের পর দিন বাবা ও সৎ ভাইয়ের লালসার শিকার হয়ে এক পর্যায়ে সম্প্রতি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েন ওই স্কুল ছাত্রী।

লোকলজ্জার ভয়ে বিষয়টি কাউকে বলতে না পারলেও তার মামীকে বিষয়টি জানায়। পরে আনু মন্ডল জোরপূর্বক ওই স্কুল ছাত্রীর ভ্রুণ নষ্ট করতে বাধ্য করে। এতদিন বিষয়টি চাপা থাকলেও বৃহস্পতিবার (২৩ আগস্ট) এলাকায় ঘটনাটি জানাজানি হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, থানা পুলিশ গিয়ে ওই স্কুল ছাত্রীর জবানবন্দি রেকর্ড করে এবং থানায় অভিযোগ দিতে বলে। এদিকে এ ঘটনার পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছে অভিযুক্ত বাবা আনু মন্ডল ও তার ছেলে রিপন হোসেন।

এ বিষয়ে ওই স্কুল ছাত্রীর মামা বাবলু খন্দকার ও গ্রাম্যপ্রধান মীর লিয়াকত আলী বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত অমানবিক ও লজ্জাজনক। বাবা-ছেলে (আনু মন্ডল ও রিপন) মিলে অমানুষের মতো কাজ করেছে। এর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি হওয়া দরকার। আমরা ওই দুইজনকে গ্রেফতারের দাবি জানাই এবং ন্যায় বিচার চাই।

এ ব্যাপারে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চাটমোহর সার্কেল) তাপস কুমার পাল বলেন, বিষয়টি জানার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলমান রয়েছে। এছাড়া পুলিশের দু’টি টিম অভিযুক্ত বাবা ছেলেকে আটকের চেষ্টা করছে। আশা করি খুব শীঘ্রই ভাল খবর দিতে পারবো।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh