ফলোআপ : উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটির গঠনের বিষয়ে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি

বৃহস্পতিবার, ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ৫:৩৭ অপরাহ্ণ | 316 বার

ফলোআপ : উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটির গঠনের বিষয়ে দুই সদস্যের তদন্ত কমিটি

পাবনার ফরিদপুরে বিএনপি পরিবারের সন্তানকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে মনোনীত করার অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ।

গত ৬ অক্টোবর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে তদন্ত কমিটি গঠনের কথা জানানো হয়েছে।

প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পাবনা জেলা শাখার অন্তর্গত ফরিদপুর উপজেলা শাখা ও ভাঙ্গুড়া উপজেলা শাখার নবগঠিত কমিটির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের অধিকতর তদন্তের স্বার্থে দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হলো।

কমিটির দুই সদস্য হলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মুরাদ হায়দার টিপু ও উপ-দপ্তর সম্পাদক মো: ইমরান শেখ। কমিটিকে আগামী সাতদিনের মধ্যে সুপারিশসহ তদন্ত প্রতিবেদন কেন্দ্রীয় দপ্তর সেলে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হলো।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম বলেন, দুই সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করেছে কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ। আমরা চিঠি পেয়েছি। সরকারি কার্যদিবসের সাতদিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমাদানের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটি আসার পর কাজ শুরু হবে।

তদন্ত কমিটির সদস্য কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক ইমরান শেখ বলেন, কমিটির আরেকজন সদস্য রয়েছেন। তার সাথে কথা বলে আমরা একটা তারিখ নির্ধারণ করে পাবনায় যাবো। সেখানে সরেজিমনে বিভিন্ন তথ্য সূত্রের সাথে কথা বলে অভিযোগের তদন্ত করবো। আশা করছি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আমরা তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে পারবো।

উল্লেখ্য, সম্মেলন ছাড়াই ত্যাগী কর্মীদের বঞ্চিত করে বিএনপি পরিবারের সন্তান জাহিদ হাসানকে পাবনার ফরিদপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করে গত ৫ অক্টোবর ঘোষণা দেয় জেলা ছাত্রলীগ। এ নিয়ে নিন্দার ঝড় উঠেছে ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে সমালোচনা।

জেলা আওয়ামীলীগের নির্বাহী সদস্য ও ফরিদপুর পৌর মেয়র খ ম কামরুজ্জামান মাজেদ ও ফরিদপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আমির ফয়সাল অভিযোগ করেন, জাহিদ হাসান ছাত্রলীগের কোন ইউনিটের সদস্যও ছিলনা। ত্যাগী কর্মীদের কোন সুযোগ না দিয়ে জেলা ছাত্রলীগ অর্থের বিনিময়ে বিএনপি পরিবারের সন্তানদের কাছে কমিটি বিক্রি করেছে। তদন্তের মাধ্যমে তারা এই বিতর্কিত কমিটি বাতিল দাবি করেন।

এ নিয়ে গত ০৫ অক্টোবর খোঁজখবর ডটনেটে ‘বিএনপি নেতার ছেলে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্টঃ WebNewsDesign