পাবনায় কৃষকের মুখোমুখি প্রশাসন

রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১১:১১ অপরাহ্ণ | 404 বার

পাবনায় কৃষকের মুখোমুখি প্রশাসন
Advertisements

পাবনায় কৃষির নানাবিধ সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ক শীর্ষক উন্মুক্ত আলোচনা সাভায় কৃষকের মুখোমুখি হন জেলা প্রশাসন। রবিবার বিকেলে পাবনা সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নে বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটি পাবনার আয়োজনে ও সদর উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় সভায় কৃষির নানাবিধ সমস্যার কথা তুলে ধরেন স্থানীয় কৃষকেরা।

উন্মুক্ত আলোচনায় কৃষিকাজে ব্যবহার্য সার, বীজ, কীটনাশক, ভূমি সেবা, মৎস্য সেবা, পশু পালন, কৃষি উৎপাদনে আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার, কৃষি পণ্যের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতকরণ ও কৃষি পন্যের বাজারজাতকরণ উৎপাদিত পণ্য সংরক্ষণসহ কৃষির নানাবিধ সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

কৃষির সাথে সংশ্লিষ্ঠ পাবনা সদর উপজেলার প্রত্যেক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এসময় উপস্থিত ছিলেন। কৃষকরা তাদের নানাবিধ সমস্যার কথা একে একে তুলে ধরেন জেলা প্রশাসনের নিকট। আর কৃষকদের সকল সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দেন জেলা প্রশাসন।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএডিসি এর নির্বাহী প্রকৌশলী সাজ্জাদ হোসেন ,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুম বিল্লাহ, , সদর এ্যাসিল্যান্ড রোকসানা পারভীন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল করিম, দাপুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আম্বিয়া খাতুন শিমু, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটি এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান কুল ময়েজ, সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদীকা বেলী বেগম, বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটি পাবনা জেলা শাখার সহ সভাপতি আনিসুর রহমানসহ স্থানীয় কৃষক -কৃষাণীবৃন্দ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি পাবনা জেলা প্রশাসক কবির মাহামুদ বলেন, কৃষকের সকল সমস্যা সমাধানের জন্য সরকার আপ্রাণ চেষ্টা করছে। কৃষি জমি নষ্ট বা কৃষকের ক্ষতি হয় এমন কোন কাজ সরকার বা প্রশাসন সমর্থন করে না। জলাশয়ের মুখ বন্ধ করে কৃষি কাজ ব্যহত হয় এমন কাজ করা যাবে না। মাছ চাষ যেমন করতে হবে পাশাপাশি কৃষির কাজও করতে হবে।

জেলা প্রশাসক বলেন, কৃষিতে আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহারে প্রতি সবাইকে প্রশিক্ষন গ্রহন করতে হবে। জৈবসার ব্যবহার বৃদ্ধি করতে হবে। জমির উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য জমিতে মাত্রাতিরিক্ত সার বা কীটনাষক ঔষধ ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে। আগামী দিনের আধুনিক প্রযুক্তি সম্পুর্ন কৃষির উপর গুরুত্ব আরোপ করছে সরকার। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে কৃষিতে আমরা আজ স্বয়ংসম্পূর্ণ। এখন কৃষক আর জমি ফেলে রাখে না। আমরা সকলে মিলে চেষ্টা করলে সকল সমস্যার সমাধান করা সম্ভব বলে মনে করছি। উন্মুক্ত আলোচনায় তিন শতাধিক কৃষক ও কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh