জাতীয় খানা জরিপের ফলাফল প্রত্যাখ্যানে টিআইবি’র বিস্ময়

মঙ্গলবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১০:৩১ অপরাহ্ণ | 497 বার

জাতীয় খানা জরিপের ফলাফল প্রত্যাখ্যানে টিআইবি’র বিস্ময়
Advertisements

ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮: গত ৩০ আগস্ট ‘সেবাখাতে দুর্নীতি: জাতীয় খানা জরিপ ২০১৭’ শীর্ষক প্রতিবেদনে প্রকাশিত বিআরটিএ সংশ্লিষ্ট দুর্নীতির ফলাফল বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ঢালাওভাবে প্রত্যাখ্যানের ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

বাস্তবতাকে আমলে নিয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের পরিবর্তে সত্যকে অস্বীকার করার এ দৃষ্টান্ত অনিয়ম-দুর্নীতিকে সুরক্ষা দেওয়া এবং সরকার ঘোষিত সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা প্রতিষ্ঠায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির অপপ্রয়াস বিবেচনায় উদ্বেগ প্রকাশ করছে টিআইবি। আজ মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) এ বিষয়ে টিআইবি’র অবস্থান ও ব্যাখ্যাসহ একটি পত্র বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরিত হয়েছে।

এক বিবৃতিতে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘‘টিআইবি কর্তৃক পরিচালিত দুর্নীতি বিষয়ক জাতীয় খানা জরিপটি প্রকাশিত হওয়ার পর জরিপে উঠে আসা বিআরটিএ সংশ্লিষ্ট দুর্নীতির ফলাফলকে সম্প্রতি বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে কী কারণে উক্ত ফলাফলকে এরকম ঢালাওভাবে ‘ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’  এবং ‘কল্পনাপ্রসূত’ আখ্যায়িত করা হলো, বিআরটিএ কর্তৃক তার কোনো ব্যাখ্যা প্রদান করা হয়নি। ”

ড. জামান বলেন, “জরিপটি পরিসংখ্যান বিজ্ঞানে বহুল অনুসৃত মানদ- ও চর্চা অনুসারে পরিচালিত হয়েছে এবং এটির বৈজ্ঞানিক মান ও পদ্ধতিগত উৎকর্ষ নিশ্চিতের জন্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিসম্পন্ন আটজনের এক বিশেষজ্ঞ প্যানেল টিআইবি’র গবেষক দলকে বিভিন্ন পর্যায়ে পরামর্শ প্রদান করেছেন। জরিপের তথ্য সংগ্রহের জন্য দেশব্যাপী খানা নির্বাচনে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো’র ইন্টিগ্রেটেড মাল্টিপারপাস স্যাম্পলিং ফ্রেম-এর আলোকে দেশের আটটি বিভাগ সমন্বয়ে দৈবচয়ন নমুনায়ন পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়েছে- যা জরিপের আওতাভুক্ত খাতের ওপর বাংলাদেশের খানাগুলোর অভিজ্ঞতার সস্পুর্ণ প্রতিনিধিত্বশীল চিত্র প্রদান নিশ্চিত করেছে।”

জরিপে অন্তর্ভুক্ত অন্যান্য খাতের মত বিআরটিএ হতে দৈবচয়িতভাবে নির্বাচিত সেবাগ্রহণকারী খানাগুলো তাদের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে এ জরিপে তথ্য প্রদান করেছে উল্লেখ করে ড. জামান বলেন, “নিয়োগকৃত মাঠ তত্ত্বাবধায়করা জরিপের সময় সংগৃহীত তথ্যের নির্ভুলতা যাচাই করেন।

এছাড়া, প্রযোজ্যক্ষেত্রে দৈবচয়নসহ যথাযথ প্রক্রিয়ায় তথ্য সংগ্রহ প্রক্রিয়া ও পূরণকৃত প্রশ্নপত্র যাচাই করা হয়। যাচাইকৃত তথ্য পরিসংখ্যান ও জরিপ বিজ্ঞানের সর্বোচ্চ মানদ- নিশ্চিত করে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। অতএব, জরিপে উঠে আসা সকল তথ্য ও তার বিশ্লেষণ বৈজ্ঞানিকভাবে সঠিক ও বস্তুনিষ্ঠ; কোনোভাবেই একে ভিত্তিহীন, বানোয়াট, উদ্দেশ্যপূর্ণ বা কল্পনাপ্রসূত বলা যাবে না।”

সুশাসন প্রতিষ্ঠার প্রত্যাশায় সরকারের সার্বিক উদ্যোগের অংশ হিসেবে বিআরটিএ কর্তৃক সম্প্রতি সুশাসন বিষয়ক কিছু পদক্ষেপ গ্রহণের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে ড. জামান বলেন, “স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে পদক্ষেপসমূহ নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ। তবে সেবা প্রদান পর্যায়ে এগুলো কতটুকু কার্যকর হয়েছে, তা অনুধাবনের অন্যতম উপায় সেবাগ্রহীতার অভিজ্ঞতাভিত্তিক গবেষণা। এ জন্য টিআইবি প্রণীত জরিপের ফলাফল বিআরটিএ কর্তৃক ঢালাওভাবে প্রত্যাখান করা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক।”

টিআইবি আশা করে, জরিপে প্রাপ্ত ফলাফল ও উপস্থাপিত সুপারিশমালা গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে বিআরটিএ তার সেবা কার্যক্রমে উন্নততর স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা সর্বোপরি দুর্নীতি প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh