জমি নিয়ে বিরোধ

চুল কেটে, সিগারেটের ছেঁকা দিয়ে গৃহবধূকে নির্যাতন

রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১০:৩৬ অপরাহ্ণ | 368 বার

চুল কেটে, সিগারেটের ছেঁকা দিয়ে গৃহবধূকে নির্যাতন
Advertisements

পাবনা সদর উপজেলা দোগাছি ইউনিয়নের মাদারবাড়িয়া গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এক দম্পতিকে গাছের সাথে বেঁধে মাথার চুল কেটে, সিগারেটের আগুনের ছেঁকা দিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত তিনটার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

আহত দম্পতি সখিনা খাতুন (৩৫) ও তার স্বামী জিলাল প্রামানিককে (৪৫) ঘটনার রাতেই পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সার্জিক্যাল বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার ওই দম্পতির মেয়ে কাজলী খাতুন জানান, শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে ৬/৭ জনের একদল সশস্ত্র দূর্বৃত্ত মুখে কালো কাপড় বেঁধে বাড়িতে এসে মা ও বাবাকে উঠিয়ে নারিকেলের গাছের সাথে বেঁধে মারপিট শুরু করে। এ সময় দূর্বৃত্তরা আমার মায়ের মাথার চুল কেঁচি দিয়ে কেটে দেয়। সিগারেটের আগুন দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছেঁকা দেয়। যাবার সময় বাড়ি ঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে মামলা তুলে নেয়ার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

হাসপাতালের মেঝেতে চিকিৎসাধীন সখিনা খাতুন জানান, স্থানীয় জামায়াতে ইসলামীর ক্যাডার শাহজাহান ও তার সহযোগীরা তারই বাড়ির ২৩ শতাংশ জমির দলিল জাল করে দখলের পাঁয়তারা করায় তাদের বিরুদ্ধে আদালতে পৃথক তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ ৮ বছর ধরে মামলা চলে আসছে। সখিনা খাতুন বলেন, ওই মামলায় শাহজাহান আলী, মারুফ হোসেন, বকুল হোসেন ও জনিকে আসামী করা হয়। মামলা দায়েরের পর থেকেই আসামীরা মামলা তুলে নিতে তাদেরকে বিভিন্ন সময়ে প্রাণনাশের হুমকি, বাড়িঘর ভাংচুর ও হামলা করে আসছে।

প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য জিলাল প্রামানিক বলেন, আমি কেঁচি কারখানায় কাজ করি। আমার সামান্য জমির কাগজ জাল করে দখলের অপচেষ্টা করেছে জামায়াতের শাহজাহান ও তার লোকজন। আদালতে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করায় একের পর এক হুমকি ধামকি দিয়ে আসছিল। মামলা তুলে না নিলে প্রাণনাশের হুমকি অব্যাহত রেখেছে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত শাহজাহান আলী জানান, জমি নিয়ে বিরোধ আছে, কিন্তু তাদের বাড়িতে হামলা করে মারধর, চুল কেটে গায়ে সিগারেটের ছেঁকা দেয়ার ঘটনা আমি জানি না। এখানে আমাকে জড়ানো একটা ষড়যন্ত্র। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছির আহম্মেদ বলেন, ঘটনা জানার পর ভিকটিমের বাড়িতে পুলিশ পাঠিয়ে কিছু আলামত জব্দ করেছি। এ ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে আহত সখিনা খাতুন মামলা করেছেন। আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh