দুর্ভোগে সাধারণ মানুষ

চাটমোহরে রাস্তা বন্ধ করে ড্রেন নির্মাণ

বুধবার, ০৮ মে ২০১৯ | ১১:২২ অপরাহ্ণ | 546 বার

চাটমোহরে রাস্তা বন্ধ করে ড্রেন নির্মাণ
Advertisements

পাবনার চাটমোহর পৌর শহরের হরিসভা রোডে রাস্তা বন্ধ করে ড্রেন নির্মাণ করায় দুর্ভোগ বেড়েছে সাধারণ মানুষের। নির্মাণ কাজে ধীরগতি ও রাস্তার ওপর মাটি এবং ইঁট স্তুপ করে রাখায় ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো মানুষ।

এছাড়া যানবাহন চলাচল ও পায়ে চলাচল করার উপযোগিতা হারিয়েছে সড়কাটি। জনগুরুত্বপূর্ণ ওই রাস্তায় চলাচল বন্ধ হওয়ায় মানুষের দুর্ভোগের অন্ত নেই। অথচ এ ব্যাপারে কোন ভ্রক্ষেপ নেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের। এতে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

জানা গেছে, পৌর সভার নগর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় শাহী মসজিদ মোড় থেকে হরিসভা রোড হয়ে কৃষ্ণ দাস কুন্ডুর বাড়ি পর্যন্ত ২৯৪ মিটার আরসিসি ড্রেন নির্মাণের কাজটি পায় এস.এ এন্টারপ্রাইজ নামে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

এরপর প্রায় বিশ দিন পূর্বে সেই ড্রেন নির্মাণের জন্য শ্রমিকরা রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি শুরু করে। পরে তারা রাস্তার ওপর মাটি ও ইঁট স্তুপ করে রাখে। এরপর থেকেই জনগুরুত্বপূর্ণ ওই রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। শুধু যানবাহনই নয়, বর্তমানে পায়ে হেঁটে যাওয়া দুরুহ হয়ে পড়েছে।

বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না শিশু-কিশোররা। বিপাকে পড়েছেন স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। অথচ উপজেলা পরিষদ, পুরাতন বাজার, নতুন বাজারসহ পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকায় যাওয়ার অন্যতম সড়ক এটি।

রাস্তা বন্ধ করে ড্রেন নির্মাণের ফলে দুর্ভোগ সৃষ্টি হওয়ায় এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও মুদি ব্যবসায়ী বাবলু দত্ত ক্ষোভের সুরে জানান, রাস্তার ওপর মাটি ও ইঁট স্তুপ করে রাখায় আমরা বাড়ি থেকে বের হতে পারছি না। বেশি ভয় হয় বাচ্চাদের নিয়ে। না জানি কখন গর্তে পড়ে যায়। লোকজন আসা-যাওয়া করতে পারছে না। আমরা বারবার বলা সত্ত্বেও মাটি ও ইঁট সরানো হয়নি। এক কথায় আমাদের জিম্মি করে রাখা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চেয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এস.এ এন্টারপ্রাইজের মালিক খন্দকার আবু জাফর মো. হাবিবুল্লাহ চঞ্চলের মোবাইলে কল করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে ড্রেন নির্মাণ কাজে নিয়োজিত শ্রমিকরা জানান কাজটি কাগজে কলমে এস.এ এন্টারপ্রাইজের নামে হলেও তারা স্থানীয় এক ঠিকাদারের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন।

দুর্ভোগের ব্যাপারে পৌর মেয়র মির্জা রেজাউল করিম দুলাল জানান, মাটিগুলো স্থানীয়দের নিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু কেউ নেয়নি। এছাড়া রাস্তাটি খুব সরু, গাড়ি ঢোকানো মুশকিল। যে কারণে মাটি বের করতে অসুবিধা হচ্ছে। তবে অচিরেই রাস্তাটি চলাচলের উপযোগী করে তোলা হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh