চিকিৎসার নামে প্রতারণা

চাটমোহরে কথিত চিকিৎসক আটক

শনিবার, ০২ মার্চ ২০১৯ | ৮:০২ অপরাহ্ণ | 1458 বার

চাটমোহরে কথিত চিকিৎসক আটক
আটক শরিফুল
Advertisements

দেশের স্বীকৃত কোন মেডিকেল কলেজ থেকে পাশ করার সনদপত্র নেই, বিএমডিসির নিবন্ধনও নেই, তবুও দীর্ঘদিন ধরে নামের পাশে ‘এমবিবিএস’ পদবী ব্যবহার করে রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে আসা শরিফুল ইসলাম শরিফ নামে এমনই এক কথিত চিকিৎসককে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (০১ মার্চ) সন্ধ্যায় পাবনার চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউনিয়নের মহেলা বাজারের ‘বিসমিল্লাহ’ ফার্মেসী থেকে তাকে আটক করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

আটক শরিফুল ইসলাম পাবনা পৌর সদরের রাধানগর মহল্লার মো. শফিউদ্দিনের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া এলাকায় এলাকায় নিজেকে এমবিবিএস চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা দিয়ে আসছিলেন।

চাটমোহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম জানান, শরিফুল ইসলাম নামের ওই ব্যক্তি এমবিবিএস ডাক্তার না হয়েও প্রেসক্রিপশন প্যাড এবং সিল ব্যবহার করে রোগী দেখে ব্যবস্থাপত্র লিখে আসছিলেন। তার কোন বিএমডিসির নিবন্ধন নম্বর নেই। শুক্রবার এমন একটি গোপন সংবাদ পেয়ে মহেলা বাজার এলাকায় ‘বিসমিল্লাহ’ ফার্মেসীতে অভিযান চালায় পুলিশ।

এ সময় তার কাছ থেকে বেশ কিছু অখ্যাত প্রতিষ্ঠানের সনদপত্রের ফটোকপি ও প্যাড জব্দ করা হয়। পরে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সবিজুর রহমানকে ডেকে নিয়ে কাগজ পত্র যাচাই বাছাই করা হয়। প্রাথমিক অবস্থায় সেগুলোতে বেশ কিছু অসঙ্গতি দেখা যায়।

তিনি আরও জানান, চিকিৎসক দাবি করা শরিফুল ইসলামের বিরুদ্ধে থানার প্রতারণার অভিযোগে এসআই গোপাল চন্দ্র মন্ডল বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর-০২। ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার (০২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

তবে শরিফুল ইসলাম দাবি করে বলেন, তিনি ১৯৯৮-৯৯ সেশনে ‘প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি’ নামক প্রতিষ্ঠানে ডাক্তারি কোর্সে ভর্তি হন। ২০০৩ সালে সেখান থেকে তিনি পাশ করে বের হন। এছাড়াও ‘বাংলাদেশ কম্বাইন্ড মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল’ থেকে সনদপত্র পান। এরপরেই তিনি পাবনার বিভিন্ন জায়গায় চিকিৎসা দিয়ে আসছেন।

এ ব্যাপারে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. সবিজুর রহমান জানান, বিএমডিসির নিবন্ধন নম্বর ছাড়া কেউ নামের সাথে ডাক্তার ও এমবিবিএস পদবী ব্যবহার করতে পারে না। শরিফুল নামের ওই ব্যক্তি তার নিবন্ধন নম্বর দেখাতে পারেন নাই। তিনি যে কাগজপত্র দেখিয়েছেন তাতে নানা অসঙ্গতি দেখা গেছে। এছাড়া যে প্রতিষ্ঠান থেকে সনদ নিয়েছেন, সেটি সরকারি স্বীকৃত কোনো প্রতিষ্ঠান নয়।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh