চাটমোহরে ‘অভিভাবকহীন’ সড়কে জনদুর্ভোগ

সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | ১১:৫৭ অপরাহ্ণ | 290 বার

চাটমোহরে ‘অভিভাবকহীন’ সড়কে জনদুর্ভোগ
Advertisements

পাবনার চাটমোহরে পৌর শহরসহ উপজেলার অধিকাংশ সড়ক চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সংস্কারের অভাবে সড়কের অধিকাংশ জায়গায় পিচ, পাথর ও খোয়া উঠে মাটি বের হয়ে সড়কে তৈরি হয়েছে বিশাল আকারের গর্ত। আর গত কয়েকদিনের টানা বর্ষণে সেই গর্তগুলোতে পানি জমে থাকায় দুভোর্গের শিকার হচ্ছেন চলাচলকারী সাধারণ মানুষ।

পথ চলতে গিয়ে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, অসুস্থ রোগী ও যানাবহন চালক ও যাত্রীরা। পানি জমে থাকার কারণে গর্তের গভীরাতা বুঝতে পারছেন না যানবাহন চালকরা। ভাঙ্গাচোরা রাস্তা দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করছেন সাধারণ মানুষ। মাঝে মধ্যেই ঘটছে দূর্ঘটনা। এলাকাবাসী দীর্ঘদিন রাস্তা সংস্কারের দাবি জানিয়ে আসলেও এ ব্যাপারে কোন ভ্রুক্ষেপ সংশ্লিষ্টদের।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, পৌর শহরের মধ্যে জিরো পয়েন্ট থেকে বোঁথর ব্রিজ, শাহী মসজিদ মোড় থেকে ভাদু নগর বাইপাস, সাহাপাড়া থেকে শাপলা ক্লাব হয়ে স্টার মোড়, কর্মকার পাড়া, উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে নতুন বাজার মোড়সহ বিভিন্ন অলিগলিতে পিচ, পাথর ও খোয়া উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। জমে আছে বৃষ্টির পানি। দীর্ঘদিন ধরে ভাঙ্গাচোরা রাস্তা সংস্কার করছে না পৌর কর্তৃপক্ষ। এতে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। বাধ্য হয়ে ভাঙ্গাচোরা রাস্তা দিয়ে চলাচল করছেন পৌরবাসী। ব্যবসা বাণিজ্যে দেখা দিয়েছে মন্দাভাব।

এদিকে এলজিইডি এবং সড়ক এবং জনপদ বিভাগের রাস্তা নিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগের শেষ নেই। তবে সবচেয়ে বেহাল অবস্থা সওজের আওতাধীন সড়কগুলোর। উপজেলা শহরের সাথে প্রধান সংযোগকারি সড়ক ভাদ্রা বাইপাস থেকে হাসপাতাল পর্যন্ত রাস্তা দেখলে যে কেউ মনে করবে সড়ক তো নয় যেন পুকুর। প্রায় তিন কিলোমিটার জুড়ে অসংখ্য খানা খন্দে পরিপূর্ণ সড়কটি। অথচ এই সড়কের পাশেই রয়েছে বেশ কয়েকটি স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা, ব্যাংক থানা, পোস্ট অফিস, হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান।

এছাড়া সওজের আওতাধিন রাস্তার মধ্যে বাসষ্ট্যান্ড থেকে হরিপুর হয়ে সোন্দভা বাসষ্ট্যান্ড, জারদ্রিস মোড় থেকে পার্শ্বডাঙ্গা, চাটমোহর থেকে মান্নাননগর, চাটমোহর থেকে ধানকুনিয়া পর্যন্ত রাস্তা একেবারেই চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। খানাখন্দে ভরপুর সড়কে যাতায়াত করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। ঘটছে প্রাণহানির মতো ঘটনাও।

কাদাপানির মধ্যে দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে বিপাকে পড়ছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। অসুস্থ রোগীদের অতিকষ্টে হাসপাতালে নিয়ে আসছেন তাদের স্বজনরা। ভাঙ্গাচোরা অনেক সড়কে একেবারেই যানবাহন শূন্য হয়ে পড়েছে। এদিকে পৌর শহরসহ উপজেলার বেশিরভাগ সড়কের এমন বেহাল অবস্থা নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে ফেসবুকসহ স্যোশাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে সমালোচনা। ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছেন এলাকাবাসী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে পৌর শহরের কয়েকজন বাসিন্দা ক্ষোভের সুরে বলেন, সড়কগুলোর অভিভাবক নেই। তাই এমন বেহাল অবস্থা। রাস্তা সংস্কারের ব্যাপারে এমপি-মন্ত্রীসহ বিভিন্ন কর্মকর্তারা এরআগে অনেকবার আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

সংস্কারের ব্যাপারে জানতে চাইলে পাবনা সড়ক ও জনপদ বিভাগের (সওজ) নির্বাহী প্রকৌশলী সমীরণ রায় বলেন, বেশ কিছু রাস্তা প্রকল্পের মধ্যে আছে। সম্প্রতি কাজ শুরু করা হয়। কিন্তু বৃষ্টির কারণে এখন কাজ বন্ধ রয়েছে। বৃষ্টি কমলে পুনরায় সংস্কার কাজ শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে সব রাস্তা সংস্কার হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

এ ব্যাপারে চাটমোহর পৌর সভার মেয়র মির্জা রেজাউল করিম দুলাল বলেন, কিছু রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল। কিন্তু বৃষ্টির কারণে সব কাজ বন্ধ হয়ে গেছে। বৃষ্টি কমলে আবারও কাজ শুরু হবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh