‘কেউ কিচ্চু দেয় নাই ব্যাটারে, ক্যাবা কইর‌্যা চলবো’

মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল ২০২০ | ৯:০২ অপরাহ্ণ | 256 বার

‘কেউ কিচ্চু দেয় নাই ব্যাটারে, ক্যাবা কইর‌্যা চলবো’
Advertisements

‘করোলা আইসে কষ্ট আরো বাড়ায়ে দিছে। কাজ কাম নাই, শুনতিছি সরকার থেনে চাল দিচ্ছে, আবার কেউ বলে খাবার দিচ্ছে। কিন্তু আমরা তো কিচ্চু পাই নাই, আমারে কেউ কিচ্চু দেয় নাই ব্যাটারে। এহন খায়া না খায়া দিনপাত চলতিছে। এরহম কইরে আর কয়দিন চলবো কওতো ব্যাটা।’

এভাবেই আক্ষেপের সুরে নিজের কষ্টের দিনলিপির কথা জানাচ্ছিলেন পাবনার চাটমোহর উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়নের এক নাম্বার ওয়ার্ডের গৌরিপুর পালপাড়া গ্রামের মৃত হদু ফকিরের স্ত্রী ছকিনা বেগম (৫৫)।

অসহায় কর্মহীন মানুষের খোঁজ নিতে প্রত্যন্ত এই গ্রামটিতে গিয়ে দেখা যায়, এক বছরের নাতী হাসান কে কোলে নিয়ে ঘরের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন ছকিনা বেগম। তার সাথে কথা বলে জানা গেল, চার ছেলে এক মেয়ে রেখে তার স্বামী মারা গেছে দশ বছর আগে। তিন ছেলে বিয়ে করে পৃথক সংসার পেতেছেন।

সব ছোট ছেলে রাফিউল ইসলাম (১৪) কে নিয়ে চলছে তার জীবনযুদ্ধ। ৬ষ্ঠ শ্রেণী পর্যন্ত পড়ার পর অর্থাভাবে বন্ধ হয়ে গেছে রাফিউলের লেখাপড়া। বড় তিন ছেলে পৃথক হওয়ার পর তার মাকে কেউ দেখাশোনা করে না। তাই ছোট ছেলে রাফিউলকে নামতে হয়েছে দিনমজুরী করে। ছকিনা বেগম কখনও মাটি কাটা, কখনও অন্যের বাড়িতে কাজ করেন। এভাবেই জোড়াতালি দিয়ে খেয়ে না খেয়ে চলছে তার সংসার। জমিজমা বলতে কিছু নেই। করোনার প্রভাবে বন্ধ হয়ে গেছে মা-ছেলের কাজ। কিন্তু তাদের কাছে এখন পর্যন্ত পৌঁছায়নি কোনো খাদ্য সহায়তা।

শুধু ছকিনা বেগমই নন, তার মতো প্রায় একই চিত্র গৌরিপুর পালপাড়া গ্রামের বেশিরভাগ পরিবারে। প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা গেল গ্রামের পরেশ চন্দ্র পাল, সুশান্ত চন্দ্র পাল, ভ্যাবল চন্দ্র পাল, কমলা রানী পাল, ফিরোজা খাতুন ও আনেচা বেগম সহ প্রায় ১৫টি পরিবার পায়নি খাদ্য সহায়তা। ফলে দুর্দিন চলছে এসব পরিবারে।

সত্তোর্ধ পরেশ চন্দ্র পাল জানান, মাটির জিনিস তৈরীর কাজ করে সংসার চালাতেন। কিন্তু বর্তমানে তো কাজ বন্ধ। তিনজনের সংসার চলছে খুবই কষ্ট করে। স্থানীয় মেম্বার তাদের কাছ থেকে আইডি কার্ডের কপি নিয়ে গেছে প্রায় ১৫ দিন হলো। কিন্তু এখন পর্যন্ত তারা চাল পাননি। পৌঁছায়নি কোনো বেসরকারি সহায়তাও।

এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরকার মোহাম্মদ রায়হান বলেন, এমনটি হওয়ার কথা নয়। আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি। না পেয়ে থাকলে ওই সমস্ত পরিবারে খাদ্য সহায়তা দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh