‘অন্যের সহায়তায় সনদ ও নিবন্ধন নম্বর জাল করেছিলেন ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ’

মঙ্গলবার, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৫:০৯ অপরাহ্ণ | 380 বার

‘অন্যের সহায়তায় সনদ ও নিবন্ধন নম্বর জাল করেছিলেন ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ’
পাবনা জেলা পুলিশের সংবাদ সম্মেলন (বামে) ও আটক ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা (ডানে)
Advertisements

সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার একটি ক্লিনিকের জনৈক ম্যানেজার সাহেব আলীর মাধ্যমে ঢাকার বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. মাসুদ করিমের সনদ ও বিএমডিসি নিবন্ধন নম্বর জাল করেছিলেন পাবনার ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা। আর সেই জাল সনদ ও নিবন্ধন নম্বর দিয়ে ৭ বছর ধরে লক্ষাধিক টাকা বেতনে চিকিৎসা করছিলেন পাবনার ভাঙ্গুড়ার একটি ক্লিনিকে। আর নিজে ভুয়া চিকিৎসক ছিলেন বলেও স্বীকার করেছেন মাসুদ রানা।

মঙ্গলবার দুপুরে পাবনা পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন শেষে গণমাধ্যমকে এসব কথা জানান মাসুদ রানা। এর আগে নীলফামারীর সৈয়দপুর থেকে আটক ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানাকে পাবনায় নিয়ে আসা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে হাজির করা হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সেখানে পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম জানান, বন্ধু চিকিৎসকের মাধ্যমে ভুয়া চিকিৎসকের বিষয়টি জানতে পেরে পাবনায় আসেন প্রকৃত চিকিৎসক ডা. মাসুদ করিম। আর তার আগেই বিষয়টি জানাজানি হলে পালিয়ে যায় ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা। এরপর অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে ধরতে মাঠে নামে পুলিশ। অবশেষে তার অবস্থান নির্নয় করার পর সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) তাকে আটক করা হয়। ২০০৫ সালে একই অপরাধে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানায় গ্রেপ্তার হয়েছিলেন ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা। সেখানে তার বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলন শেষে আটক ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, তিনি ৬ মাসের প্যারামেডিকেল একটি কোর্স সম্পন্ন করে ডাক্তার সেজেছিলেন। চিকিৎসা ক্ষেত্রে তার নেই কোনো ধরনের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, নেই কোনো অভিজ্ঞতা। অভিজ্ঞতা না থাকলেও তিনি বিভিন্ন রোগের ব্যবস্থাপত্র লিখেছেন, আলট্রাসনোগ্রাফি করেছেন। ডা. মাসুদ করিমকে তিনি চেনেন না, কখনও দেখেননি বলেও জানান।

এ বিষয়ে ডা. মাসুদ করিম পাবনার গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, বিভিন্ন মিডিয়াতে ভুয়া চিকিৎসক মাসুদ রানা কে নিয়ে সংবাদ প্রচার করায় তাকে চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়েছে। তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তার পেছনে কারা জড়িত সব বেরিয়ে আসবে বলে মনে করেন ডা. মাসুদ করিম।

পাবনার পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম (বিপিএম-পিপিএম) বলেন, ইতিমধ্যে এ ঘটনায় মাসুদ রানাকে আসামী করে ভাঙ্গুড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এই জালিয়াতির সাথে অন্য কেউ বা কোনো প্রতিষ্ঠান জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। তদন্তের পর বিস্তারিত বেরিয়ে আসবে বলে জানান তিনি।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আইটি সাপোর্ট ও ম্যানেজমেন্টঃ Creators IT Bangladesh