শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল

বৃহস্পতিবার, ৩০ জুলাই ২০২০ | ৯:১২ অপরাহ্ণ | 269 বার

শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল
Advertisements

বরাবরের মতো ভাল ফলাফলের মাধ্যমে চাটমোহরের বুকে শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল। ইতিমধ্যে উপজেলা পর্যায়ে শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে স্কুলটি। যার ফলশ্রুতিতে এবছর থেকে নিজ স্কুল থেকেই অষ্টম শ্রেণীতে ফর্ম ফিলাপ ও স্কুলের নামেই পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ পেয়েছে নিম্ন মাধ্যমিক এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। এতে করে আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল তারা।

এর আগে চলতি বছরের গত ১০ মার্চ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা রাজশাহী অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক ড. শারমিন ফেরদৌস স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল নিম্ন মাধ্যমিক (৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণী) পর্যায়ে পাঠদানের অনুমতি প্রদান করা হয়। এতদিন স্কুলটি প্রি-ক্যাডেট হিসেবে প্লে থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করিয়ে আসছিল স্কুলটি। তবে বর্তমানে দশম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান করানো হচ্ছে এ স্কুলে। এভাবে সাফল্য অব্যাহত থাকলে আগামীতে দশম শ্রেণীতে এই স্কুল থেকেই ফর্ম ফিলাম ও পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ আসবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

শুরুর কথা : জানা গেছে, উপজেলা পর্যায়ে মান সম্পন্ন শিক্ষা ব্যবস্থা চালুর অংশ হিসেবে ২০০০ সালে চাটমোহর পৌর সদরের শাহী মসজিদ মোড়ে কাজীপাড়া মহল্লার একটি ভাড়া বাড়িতে প্লে থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদান শুরুর মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে স্কুলটি। চাটমোহরের বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী বতর্মানে জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিভাগের অধীন বাংলাদেশ গ্যাসফিল্ডস কোম্পানী লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) পদে কর্মরত এ টি এম শাহ আলম আতা তার পিতা ডাক্তার আলহাজ্ব জয়েন উদ্দিনের নামে ‘ডি এ জয়েন উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুল’ প্রতিষ্ঠা করেন।

এরপর ২০০১ সালে নারিকেলপাড়া মহল্লায় বর্তমানে অবস্থিত নিজস্ব জমিতে স্কুলটি স্থানান্তর করা হয়। ২০০৭ সালে পাঁচতলা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। বর্তমানে নিচতলা বাদে উপরের তিনতলায় মনোরম পরিবেশে শ্রেণী কক্ষ, লাইব্রেরী, শিক্ষকদের কক্ষ, প্র্যাকটিক্যাল ক্লাসের কক্ষ, খেলাধুলার ব্যবস্থা সহ বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা রয়েছে। সেইসাথে রয়েছে ১৭টি কম্পিউটার ও ল্যাপটপ সুবিধার কম্পিউটার কক্ষ। আর ৫ম তলায় নির্মাণ করা হচ্ছে সুপরিসরে একটি মিলনায়তন। সবমিলিয়ে চাটমোহরে একটি বেসরকারি আধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরিণত ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল। বর্তমানে স্কুলটিতে ৩০ জন শিক্ষক পাঠদান করছেন। আর শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় ৯শ’জন।

ফলাফল : পরীক্ষার ফলাফলে বরাবরই অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে ঈর্ষণীয় ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুল। ২০১৫ সাল থেকে এই স্কুল থেকে জেএসসি পরীক্ষা দেয়া শুরু হয়। ওই বছরে ১১ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ লাভ করে ৮ জন। ২০১৬ সালে ২২ জন অংশ নিয়ে ২০ জনই জিপিএ-৫ অর্জন করে। এর মধ্যে বৃত্তি লাভ করে ১৪ জন। ৮ জন ট্যালেন্টপুলে ও ৬ জন সাধারণ গ্রেডে। ২০১৭ সালে ২৭ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পায় ২১ জন। বৃত্তিলাভ করে ১৮ জন। ট্যালেন্টপুলে ১১ ও সাধারণ গ্রেডে ৭ জন।

২০১৮ সালে ৪৮ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ৩০ জন জিপিএ-৫ অর্জন করে। বৃত্তি পায় ২৫ জন। ট্যালেন্টপুলে ১৮ ও সাধারণ গ্রেডে ৭ জন। ২০১৯ সালে ৪০ জন অংশ নিয়ে জিপিএ-৫ পায় ১৯ জন। বৃত্তিলাভ করে ১৮ জন। ট্যালেন্টপুলে ৮ জন ও সাধারণ গ্রেডে ১১ জন। আর ২০১৭ সাল থেকে এ স্কুলের শিক্ষার্থীরা অন্য স্কুলের মাধ্যমে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক যা বললেন : স্কুলটির প্রধান শিক্ষক সন্ধ্যা কিরিটী বলেন, একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাফল্য নির্ভর করে ওই স্কুলের শিক্ষার পরিবেশ ও শিক্ষকদের আন্তরিকতার উপর। আমাদের স্কুলের শিক্ষার পরিবেশ অন্য যেকোনো স্কুলের চেয়ে মনোরম ও সুন্দর। আর শিক্ষকরাও নিরলসভাবে আন্তরিকতার সাথে বন্ধুসুলভ আচরণের মাধ্যমে শিশু শিক্ষার্থীদের পাঠদান করিয়ে থাকেন। যেকারণে অভিভাবকরাও নিশ্চিন্তে তাদের সন্তানকে আমাদের স্কুলে ভর্তি করেন। আমরা এতদিনে সে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছি। স্কুলের সভাপতি মহোদয় ও সবার সম্মিলিত প্রচষ্টোয় আমরা সফলতা অর্জন করেছি। আগামীতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করি।

স্কুলের সভাপতি যা বললেন : ডি এ জয়েন উদ্দিন স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এ টি এম শাহ আলম আতা বলেন, আমরা কোনো ব্যবসায়ী মনোভাব নিয়ে নয়, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে শুধুমাত্র চাটমোহরের মানুষদের একটি আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উপহার দিতে চেয়েছি রাজধানীর বাইরে উপজেলা পর্যায়ে আমি এমন একটি স্কুল স্থাপন করেছি। যাতে করে অভিভাবকরা তাদের সন্তানকে একটি মান সম্পন্ন স্কুলে শিক্ষাদান করাতে পারেন। আর স্কুল প্রতিষ্ঠায় সহযোগিতা করেছেন বড় ভাই ডাক্তার শহিদুল্লাহ, ভাবী ডাক্তার নিরু শামসুন্নাহার, ছোট ভাই বিগ্রেডিয়ার একেএম সাইফুল ইসলাম, আরেক ভাই প্রকৌশলী শাহাদত হোসেন, সালাউদ্দিন শিমুল, স্ত্রী নাহিদা আলম, প্রধান শিক্ষকসহ প্রতিষ্ঠাকালীন শিক্ষকমন্ডলী। তাদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
khojkhobor.net-এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!