একসাথে ১১ জন নতুন চিকিৎসক পেলো চাটমোহরবাসী

বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৯:২২ পিএম | 1308 বার

একসাথে ১১ জন নতুন চিকিৎসক পেলো চাটমোহরবাসী
Advertisements
Share Button

চিকিৎসা সেবায় দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থা বিরাজ করা পাবনার চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শূন্য পদে একসাথে ১১ জন নতুন চিকিৎসক যোগ দিয়েছেন। এর মাধ্যমে হাসপাতালটি চিকিৎসক সংকট কাটিয়ে উঠবে বলে মনে করছেন চাটমোহরবাসী।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শুয়াইবুর রহমান এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ডা. স.ম. বায়েজীদ-উল ইসলাম রজনীগন্ধা ফুল উপহার দিয়ে নতুন চিকিৎসকদের বরণ করে নেন। নতুন চিকিৎসকদের সবাই ৩৯ তম বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাড্যারের আওতায় নিয়োগপ্রাপ্ত।

যোগদানকৃত চিকিৎসকরা হলেন, সহকারী সার্জন ডা. মাহমুদুল হাসান খান, ডা. মোবাশ্বিরুল ইসলাম, ডা. মাহবুব-ই মাঈন, ডা. কে.এম রাকিব হোসেন হৃদয়, ডা. আবরার মাহবুব, ডা. মো. ওমর ফারুক, ডা. নিলুফা ইয়াসমিন, ডা. ইবনে মুরাদ ডালিম, ডা. আঁখি রানী দত্ত, ডা. ফারজানা আক্তার ও ডা. নাঈম হাসান।

এদিকে নতুন চিকিৎসকদের যোগাদানের খবর পেয়ে অনেকটা স্বস্তি ফিরেছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে। এর আগে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বেহাল অবস্থা নিয়ে বেশ কিছু গণমাধ্যমে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

জানা গেছে, চিকিৎসক সংকটের কারণে দীর্ঘদিন পঞ্চাশ শয্যা বিশিষ্ট চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা সেবা জোড়াতালি দিয়ে চলছিল। চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছিলেন রোগী ও তাদের স্বজনরা। হাসপাতালটিতে গড়ে প্রতিদিন ৪/৫শ’ রোগী হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আসেন। হাসপাতালে মেডিসিন, সার্জারী, গাইনী, শিশু, আর্থোসার্জারী, কার্ডিওলোজী, চক্ষু, নাক কান গলা, এ্যানেসথেসিয়া, চর্ম ও যৌন বিশেষজ্ঞ’র মত গুরুত্বপূর্ণ পদ থাকলেও কোন চিকিৎসক ছিল না।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ইউনিয়ন সাব সেন্টার মিলিয়ে ৩২ জন মেডিকেল অফিসারের পদ থাকলেও ২২টি পদ দীর্ঘদিন শূন্য ছিল। মাত্র চারজন চিকিৎসক দিয়ে কোনোমতে উপজেলার চার লাখেরও অধিক মানুষের জোড়াতালির চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছিলেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এতে কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিলেন এলাকার সাধারণ মানুষ। নতুন চিকিৎসক যোগাদানে পর হাসপাতালের চিত্র পাল্টে যাবে বলে ধারণা হাসপাতাল সংশ্লিষ্টদের। তবে নতুন যোগদানকৃত চিকিৎসকরা কতদিন তাদের কর্মস্থলে থাকেন এ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।

পৌর শহরের দোলবেদীতলার বাসিন্দা ও মানবাধিকার কর্মী রনি রায় বলেন, ‘নতুন ডাক্তার যোগাদানের খবর শুনে খুব আনন্দিত হলাম। কিন্তু এর আগেও অনেক চিকিসক যোগাদানের কিছুদিনের মাথায় বদলি নিয়ে শহরে চলে গেছেন। তবে আশা তারা কর্মস্থলে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী থেকে সাধারণ মানুষকে সেবা দেবেন।’

চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) ডা. স.ম. বায়েজীদ-উল ইসলাম বলেন, চিকিৎসক সংকটের কারণে উপজেলার স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করা বেশ কষ্টকর ছিল। তবুও নানা প্রতিবন্ধকতার মধ্যে দিয়ে চিকিৎসা দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা করেছি। অন্তত দুই বছরের আগে যোগদানকৃত নতুন চিকিৎসকদের অনত্র্য যাওয়ার সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।

Share Button

মন্তব্য করতে পারেন...

comments

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯  
খোঁজখবর.নেট এ প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Development by: webnewsdesign.com

error: Content is protected !!